রূপকথার আলোর সন্ধানে।

আইটি লাইফ ডেস্ক: মুঠোফোনে হোক কিংবা কম্পিউটারে এক বা একাধিক ব্যবহারকারী খেলা যায় এমন জাপানি রোলপ্লেয়িং গেমগুলোর সঙ্গে যে গেমারদের পরিচিতি আছে, তাদের কাছে কিংডম হার্টস সিরিজ মোটেই নতুন নয়। এ সিরিজের সর্বশেষ সংস্করণ কিংডম হার্ট আনচেইন্ড। স্কয়ার এনিক্স এবং সাকসেস করপোরেশন গেম নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের সমন্বিত প্রচেষ্টার ফসল কিংডম হার্ট আনচেইন্ড। গেমটি প্রথম জাপানের বাজারে ওয়েবে খেলার জন্য ২০১৩ সালের জুলাই মাসে ছাড়া হলেও অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস অপারেটিং সিস্টেম চালিত স্মার্টফোনের জন্য বাজারে আসতে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় লেগে যায়। চলতি বছরের এপ্রিলে গেমটি সবার জন্য উন্মুক্ত করা হয়।

0ac291219fa5c3bc98955cb76ae79c59-2
কিংডম হার্টস সিরিজ সম্পর্কে ধারণা না থাকলেও কোনো সমস্যা নেই। গেমটির কাহিনি মূলত একটি রূপকথার গল্পের ওপর ভিত্তি করে এগিয়ে চলে, যেখানে একজন বৃদ্ধ তাঁর নাতিকে সবচেয়ে প্রিয় রূপকথার গল্প বলতে থাকেন। তবে কাহিনি থেকে গেমটি পরিচালনা করা বেশ কষ্টসাধ্য বটে। গেমটি খেলতে দক্ষতা তো দরকারই, পাশাপাশি দরকার অশেষ ধৈর্য। অনেক সময় নিয়ে খেলতে হয়। সে যা হোক, গেমারদের প্রশংসা কুড়াতে গেমটির মোটেও সময় লাগেনি। রূপকথার আলো-আঁধারির কাহিনি অবলম্বনে গেমটি এগিয়ে যায়।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Notify of
avatar
300

wpDiscuz